1. admin@ourbhola.com : আমাদের ভোলা : আমাদের ভোলা
সেপ্টেম্বরে বিশ্ববিদ্যালয় খোলা নিয়ে যা জানালেন উপাচার্যরা - আমাদের ভোলা
মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:২৭ অপরাহ্ন
নোটিশঃ
প্রিয় ভিজিটর, দ্বীপজেলা ভোলার বৃহত্তম ওয়েবসাইটে আপনাকে স্বাগতম...

সেপ্টেম্বরে বিশ্ববিদ্যালয় খোলা নিয়ে যা জানালেন উপাচার্যরা

  • আপডেটের সময় : শনিবার, ৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ১৬২ বার পঠিত
https://ourbhola.com/wp-content/uploads/2021/09/Dhaka-University20190701035845.jpg
সেপ্টেম্বরে বিশ্ববিদ্যালয় খোলা নিয়ে যা জানালেন উপাচার্যরা

বিশ্ববিদ্যালয় খোলা নিয়ে মতামত জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যরা। একসাথে সব খুলে দেয়া যায় কিনা বা হল খুলে ধীরে ধীরে প্রতিষ্ঠান খোলার সিদ্ধান্ত নিতে পরামর্শ সভা ডেকেছে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যরা।

আগামী ১২ সেপ্টেম্বর থেকে দেশের সব প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিকের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলছে। একইসঙ্গে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ চাইলে এদিন থেকে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোও খুলে দিতে পারবে বলে জানিয়েছে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। শুক্রবার (৩ সেপ্টেম্বর) শিক্ষামন্ত্রী সাংবাদিকদের এসব তথ্য জানিয়েছেন।

তবে শিক্ষামন্ত্রীর নির্দেশনার পরে সেপ্টেম্বরেই বিশ্ববিদ্যালয়গুলো খুলতে অনেকটা অপারগতা দেখিয়েছেন বেশ কয়েকটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য। তারা বলছেন, শিক্ষামন্ত্রী নির্দেশনা দিলেও তারা শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্যবিধির বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে দেখছেন। উপাচার্যরা শিক্ষার্থীদের টিকা দিয়েই বিশ্ববিদ্যালয় খুলতে চান।

গুচ্ছ এর অনিয়ম নিয়ে মুখ খুললেন ঢাবির শিক্ষক

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এর উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান বলেন,

ঢাবির স্নাতক ও স্নাতকোত্তরের শিক্ষার্থীদের জন্য শর্তসাপেক্ষে আবাসিক হলগুলো খুলে দেওয়া হচ্ছে। তবে যে সিদ্ধান্ত প্রভোস্ট কমিটির সভায় নেওয়া হয়েছিলো, সে রোডম্যাপ অনুযায়ী খোলা হবে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস।

ঢাবি উপাচায় বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় খোলার বিষয়ে আমরা একটা রোডম্যাপ ঘোষণা করেছিলাম। সে রোডম্যাপ অনুযায়ী বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস খোলা হবে। এর কোনো ব্যতিক্রম হবে না।

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় এর উপাচার্য অধ্যাপক গোলাম সাব্বির সাত্তার বলেন,

আমরা সংবাদমাধ্যমে এসব খবর দেখেছি। তবে এখনো সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ থেকে কোন নির্দেশনা পাইনি। তবুও আমরা নিজ উদ্যোগে আগামীকাল শনিবার বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি সভা ডেকেছি। সভায় আলোচনার ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত জানানো হবে।

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় এর উপাচার্য অধ্যাপক ড. শিরীন আখতার বলেন,

আমরা চাচ্ছি বিশ্ববিদ্যালয় খুলে দিতে। কিন্তু স্কুল-কলেজের মতো হঠাৎ করেই তো খুলতে পারবো না। আমাদের হল খুলতে হবে, শিক্ষার্থীদের টিকাগুলো নিশ্চিত করতে হবে। এ পর্যায়গুলো আগে পেরিয়ে আসতে হবে।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় এর উপাচার্য অধ্যাপক ড. ইমদাদুল হক বলেন,

কর্তৃপক্ষরা আসলে এভাবেই সিদ্ধান্তের কথা জানায়। কিন্তু এসব সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করতে হয় আমাদের। আমাদের সবকিছু চিন্তা করে সিদ্ধান্ত নিতে হয়। জবি অনাবাসিক হলেও আমরা শিক্ষার্থীদের টিকার বিষয়টি গুরুত্ব দিচ্ছি। একইসঙ্গে আমরা পরিস্থিতিও পর্যবেক্ষণ করছি।

তবে আগামী ১২ সেপ্টেম্বরে প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক স্কুল-কলেজের সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোও খুলে দেয়ার জন্য উপাচার্যদের অনুরোধ করবেন বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি।

তিনি বলেন, আগামী সপ্তাহে কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয় খোলার ব্যাপারে তাদের সিদ্ধান্ত কী তা জানতে বৈঠক করবো। আমরা ১২ সেপ্টেম্বরে প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক স্কুল-কলেজ খুলে দেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছি।

শিক্ষামন্ত্রী আরও বলেন, আমরা বিশ্ববিদ্যালয় গুলোও সেপ্টেম্বরে খুলে দিতে আগ্রহী। তবে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় যেহেতু স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান, তাদের ব্যাপারে আমরা হস্তক্ষেপ করতে পারি না। কারণ, বিশ্ববিদ্যালয় সিন্ডিকেটসহ বিভিন্ন বডি রয়েছে, চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত তারাই নেবেন।

ফেসবুকে আমরাঃ আমাদের ভোলা

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আপনার ফেসবুক আইডি থেকে কমেন্ট করুন

উক্ত লেখাটি সোসাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো লেখা
© All rights reserved © 2021 আমাদের ভোলা
Development By MD Rasel Mahmud