1. admin@ourbhola.com : আমাদের ভোলা : আমাদের ভোলা
দৌলতখান উপজেলা নামকরনের ইতিহাস – আমাদের ভোলা
নোটিশ :
প্রিয় ভিজিটর, দ্বীপজেলা ভোলার বৃহত্তম ওয়েবসাইটে আপনাকে স্বাগতম...

দৌলতখান উপজেলা নামকরনের ইতিহাস

  • আপডেটের সময় : বৃহস্পতিবার, ১৬ মে, ২০১৯
  • ৬৫৯ বার পড়েছেন

দৌলতখানের  পটভূমিঃ বাংলাদেশের উপকুলীয় ভোলার দ্বীপন্জল ভোলার পূর্বপ্রান্তে সর্বনাশী মেঘনার তীরে অবস্থিত দৌলতখান উপজেলা । প্রচলিত কথায়, ইতিহাসের ভাষায় দৌলতখান ভদ্রলোকের বাসস্থান । এক সময় দৌলতখান ছিল ভোলার প্রান কেন্দ্র । শতবর্ষ পূ্র্বে এখানে ছিল মহাকুমা সদর ।সাগর পারের চর জঙ্গল আবেদত্ত কাহিনীর প্রথম সূত্রপাত মেঘনা  তীরের এই দৌলতখানেই । মোঘল আমলের প্রথম দিকেও এই এলাকা ছিল আরাকান রাজ্যের মগ , জলদস্যু ও পর্তুগীজ ফিরিংঙ্গিদের আশ্রয়স্থল । বাংলার মোঘল সুবেদার মীর জুমলার মৃত্যুর পর আমলগীরের মামা এবং  সম্রাজ্ঞী নুরজাহানের ভাই আসক খানের পুত্র শায়েস্তা খানকে বাংলার সু্বেদার নিযুক্ত করা হয়েছে । তিনি ১৯৬৬ খিঃ চট্রগ্রাম পর্তুগীজদেও দুর্গ জয় করেন । এসময় মোগল বাহিনীর দুর্ধর্ষ সেনাপতি শাহাবাজ খা তাহার একজন দুঃসাহসিক সামান্ত সেনা দৌলতখার সহায়তায় বঙ্গোপসাগর ও মেঘনার সঙ্গমস্থল সন্দীপ ও উত্তর দিকে মেঘনার উপকুল বাহিয়া পর্তুগীজ জলদস্যৃ ও আরাকানের মগদিগকে স্থল ও নৌ যুদ্বে পরাজিত করে তাহাদেরকে বিতারিত করে এই এলাকায় স্থানী স্থাপন করেন । অতপর মোঘলদের রীতি অনুসারে মেঘনা তীরের তাদের বিজিত এলাকা দুইভাগে বিভক্ত করে ইলিশা নদির উত্তর দিকের নাম রাখেন উত্তর শাহাবাজপুর এবং দক্ষিন অংশের নাম রাখেন দৌলতখা। Naming history ( Charfashion, Burhanuddin, daulatkhan, tazumuddin, Lalmohon, manpura )দৌলতখান ‍উপজেলা একসময় সম্ভ্যাম্ভ থাকল্রেও বর্তমানে নদী ভাংনের ফলে দৌলতখানের ঐতির্য বিলিনের পথে । নয়টি ইউনিয়ন নিয়ে দৌলতখান উপজেলা গঠিত হলেও বর্তমানে ০৩ টি ইউনিয়ন সম্পুর্ন রুপে নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গিয়েছে । এবং দুইটি ইউনিয়নর অনেকাংশ বিলীণ । এমনি অবস্থায় দৌলতখান উপজেলার ৬০% জনগন প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে মেঘনা নদীর নির্ভরশীল ।

গরীবের বন্ধুত্ব-তানজিমা আনজুম তারিন(বাবুনি)

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আপনার ফেসবুক আইডি থেকে কমেন্ট করুন

উক্ত লেখাটি সোসাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন

এই বিভাগের আরো লেখা
© All rights reserved © 2019 আমাদের ভোলা
Developed BY Mohona IT