1. admin@ourbhola.com : আমাদের ভোলা : আমাদের ভোলা
শিক্ষার্থী হিসেবে এই তিনটি প্রশ্নের উত্তর জানা একান্ত আবশ্যক - রাসেল মাহমুদ - আমাদের ভোলা
মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:৩৭ অপরাহ্ন
নোটিশঃ
প্রিয় ভিজিটর, দ্বীপজেলা ভোলার বৃহত্তম ওয়েবসাইটে আপনাকে স্বাগতম...

শিক্ষার্থী হিসেবে এই তিনটি প্রশ্নের উত্তর জানা একান্ত আবশ্যক – রাসেল মাহমুদ

  • আপডেটের সময় : সোমবার, ১৪ জুন, ২০২১
  • ৫০৯ বার পঠিত
একজন শিক্ষার্থী হিসেবে এই তিনটি প্রশ্নের উত্তর জানা একান্ত আবশ্যক - রাসেল মাহমুদ

একজন শিক্ষার্থী হিসেবে এই তিনটি প্রশ্নের উত্তর জানা একান্ত আবশ্যক। প্রশ্ন তিনটি করেছেন- সমাজ সেবা স্বপ্নীল সংগঠনের নির্বাহী পরিচালক – সাজেদুল ইসলাম রাব্বি। শিক্ষার্থী- ভোলা সরকারি কলেজ।

উত্তর দিয়েছেন- আইডিয়াল সোসাইটি অব বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা- রাসেল মাহমুদ।শিক্ষার্থী- ভোলা সরকারি কলেজ।

১। একজন ছাত্র/ছাত্রীর দৈনন্দিন জীবন কেমন হওয়া উচিত এবং দিনের ২৪ ঘন্টা কিভাবে কাটানো বলে মনে করেন?

২। অতিরিক্ত ঘুম বাদ দেয়া যায় কিভাবে?

৩। পড়তে বসলে ঘুম আসে,কিভাবে পড়াতে মনোযোগ বৃদ্ধি করা যেতে পারে?

১। একজন শিক্ষার্থী দৈনন্দিন জীবন কেমন হওয়া উচিত এবং দিনের ২৪ ঘন্টা কিভাবে কাটানো বলে মনে করেন?

১। ছাত্রজীবন মানেই বুঝি শিক্ষাগত জীবনকে। যে জীবন টা অন্য সাধারণ ভাবে জীবন যাপন থেকে অনেক কঠিন এবং আনন্দময়। কঠিন বলার কারণ একজন ছাত্র মানেই তার মাঝে যে নৈতিক গুন থাকে বা তাকে যেভাবে নিজের জন্য,পরিবারের জন্য,দেশ ও জাতির জন্য গঠনে লড়াই করতে হয় অন্য দশজনের সেটি হয়না। আর আনন্দময় বলার কারণ হলো- আমরা জানি ইচ্ছা শক্তি আর ভালো লাগা খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়।

যে শিক্ষার্থী সে অবশ্যই তার শিক্ষাকে ইচ্ছায় ভালো লাগাতে পরিণত করবে।তবে তার জন্যও তাকে চেষ্টা করতে হবে। একজন ছাত্র মানে সততা,ন্যায়নিষ্ঠা, সময়ানুবর্তীতা,দায়িত্ববোধ আর স্রষ্টার প্রতি আনুগত থাকার বিকল্প নেই। দিনের শুরু যখন হবে স্রষ্টার কৃতজ্ঞতায়, তখন একজন মুসলিম হিসেবে সকাল টা হবে অনেক সুশীতল ময়।

কারণ যারা ফজর নামাজ পরে শীতল বাতাসে হাঁটে তারাই জানে প্রকৃতি কত সুন্দর!!! সুতরাং একজন ছাত্র হিসেবে সময় মূল্য দিতে ভোরে জাগতেই হবে। অন্যরা যখন ৯/১০ টা ঘুম থেকে উঠে গোসলে যায়,আপনি তখন দিনের অর্ধেক পড়া শেষে একটু বিশ্রাম নিন। নিজে পেট ভরে খেলে হবে না,প্রতিবেশির ও খোঁজ নিন। বড় কথা ২৪ ঘন্টা রুটিন অনুযায়ী চলতে না পারলেও সময়ের অপচয় যেনো না হয়।

আমি আমার ভালো থাকার কারণ হতে চাই- রাসেল মাহমুদ

২। অতিরিক্ত ঘুম বাদ দেয়া যায় কিভাবে?

২। অতিরিক্ত ঘুম বলতে কিছু নেই, যা আছে শারিরীক ক্লান্তি,মানসিক বিষন্নতা আর মনোযোগের অভাব। কারণ কি জানেন একজন মানুষ দৈনিক ৬-৮ ঘন্টা ঘুম একান্তই যথেষ্ট। সেটা হতে পারে রাত ১১ টা থেকে ৪/৫ টা। এবং দিনে দুপুুর সময় ২-৩ টা। তার পরেও ঘুম আসার সম্ভবনা খুব কম।

৩। পড়তে বসলে ঘুম আসে,কিভাবে পড়াতে মনোযোগ বৃদ্ধি করা যেতে পারে?

৩। পড়াসময় খুব ঘুম পায় কিন্তু মোবাইল টিপার সময় তো তেমন ঘুম আসে না এমন প্রশ্ন বিরল। এর জন্য নিজের উপর অনেক প্রভাব ফেলতো ঘুমে। রাতে পড়তেই পারতাম না আমি। তারপর জানতে পারি বিজ্ঞান ও রাসূলের হাদিস অনুযায়ী – সন্ধ্যা থেকে মধ্য রাত পর্যন্ত ঘুমের উত্তম সময়।কারণ এসময় আমাদের দেহ থেকে এক প্রকার হরমোন নিসঃরণ হয়।যা আমাদের ঘুমের মাঝে পরিপূর্ণ তৃপ্তি আনে।

সন্ধ্যা বলতে একজন মুসলিম হিসেবে এশার নামাজের পর। রাত ৮/৯ থেকে রাত ১২ পর্যন্ত ৩/৪ ঘন্টা ঘুম আমার পড়ালেখায় ক্লান্তি দূর করে দেয়। রাত ১২ টা থেকে ফজরের আগ পর্যন্ত পড়ুন।দেখবেন কোনো বাজে চিন্তা থাকবে না,ঘুম আসবে না,পরিবেশ আপনাকে বিরক্ত করবে না।খুব ভালো একটা মনোযোগ পাবেন যা আপনার মস্তিষ্কের জন্য অত্যন্ত কার্যকরী।

সন্ধ্যা ৮/৯-১২ পর্যন্ত ঘুমানোর জন্য আপনি প্রথম ২/৩ দিন ট্রাই করেন, তবে প্রথম যেদিন রাত ৮/৯-১২ টা ঘুমাবেন সেদিন দিনে অন্তত ২-৩ ঘন্টা ঘুমাবেন, পরে দিনে ১-২ ঘন্টা আর রাত ৮/৯-১২ টা ঘুমালে রাত ১২ টা থেকে ফজর পর্যন্ত আপনার ঘুম আসার সম্ভবনা ১০%। কারণ আমার প্রতিদিনের রুটিন ছিলো এটা।যখন ঘুমের জন্য পড়তে পারতাম না,হতাশায় পরে যাই।

তখনই এমন সিদ্ধান্ত নেই এবং একমাসে আমি আমার অতিতের এক বছরের পড়া রিভিশন দিতে পারি। দিনে পড়ার সময় কখনো একসাথে ১ ঘন্টা সময় পড়বেন না। আপনি যখন পড়তে বসবেন তখন ৪৫/৫০ মিনিট পড়ুন। ১০/১৫ মিনিটের জন্য বই সামনে থেকে দূরে রাখুন। এই সময়টা যা খুশি করুন। বিশেষ করে আনন্দায়ক হলে খুবই ভালো।

সাথে পানি পান করুন,কিছু খেতেও পারেন। তারপর আবার ৪৫/৫০ মিনিট পড়ুন। দীর্ঘ সময় ধরে আপনি পড়তে পারবেন ইনশাআল্লাহ। তবে মনে রাখবেন পড়তে যখন ভালো লাগবে ক্লান্তি আসছে না মনে হয় তখন আপনি ১ ঘন্টার বেশি সময় পড়তে থাকুন।তখন মনোযোগ কে বিচ্ছিন্ন করবেন না।ধন্যবাদ♥ নিজের জীবন আর বাস্তবতা থেকে যতটুকু সম্ভব ছিলো প্রশ্ন তিনটির উত্তর দেয়ার চেষ্টা করেছি।ভূলত্রুটি ক্ষমার চোখে দেখবেন।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

আপনার ফেসবুক আইডি থেকে কমেন্ট করুন

উক্ত লেখাটি সোসাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো লেখা
© All rights reserved © 2021 আমাদের ভোলা
Development By MD Rasel Mahmud